শিরোনাম
কওমী মাদ্রাসা ও হাটহাজারী মাদ্রাসার ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ছাত্রসমাজের ছয় দফা দাবি নিয়ে কঠিন আন্দোলন। – প্রথম বেলা

কওমী মাদ্রাসা ও হাটহাজারী মাদ্রাসার ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ছাত্রসমাজের ছয় দফা দাবি নিয়ে কঠিন আন্দোলন।

রাকিব বিন রজব সিদ্দিকী।

দুঃখের সাথে বলতে হয়, আজ আমাদের কওমীর ঐতিহ্য কোথায় হারিয়ে যাচ্ছে। স্বার্থের কাছে যেমন ভাবে সমস্ত কিছু বিক্রি হয়ে যায়, তেমন ভাবে আজ বর্তমান কিছু নামধারী আলেম তারা নিজেদের স্বার্থ হাসিলের লক্ষে পূর্বের বুজুর্গদের মেহনতে প্রতিষ্ঠিত, কওমি ঐতিহ্য টাকে ধ্বংস করার জন্য একদল নামধারী আলেম গভীর ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দারুল উলুম মইনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার ঐতিহ্যকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে, একদল স্বার্থবাদী আলেম সমাজ, আজ সারা বাংলাদেশের সমস্ত কওমি অঙ্গন গুলো তাদের এমন কার্যক্রম দিকে তারা হতভাগ, এরই সুবাদে আজ হাটহাজারী মাদ্রাসার সমস্ত ছাত্রসমাজ তাদের হাটহাজারী মাদ্রাসার ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনার লক্ষে কঠিন আন্দোলনের পদক্ষেপ নিচ্ছে। এবং জোরদারভাবে ছয় দফা দাবি জানাচ্ছে। ছাত্রসমাজের ছয় দফা দাবির আন্দোলনের সর্বশেষ পরিস্থিতি হল এই আনাস মাদানীকে দশ মিনিটের সময় দেয়া হয়েছে রুম থেকে বের হওয়ার জন্য৷ দশ মিনিট পার হয়ে গেলে ছাত্ররা তার রুমের সামনে ভীর জমাইতে থাকে৷

এদিকে একদল ছাত্র ভাইয়েরা বাবু নগরী সাহেবের রুমের সামনে পাহাড়ায় বসে গেছে৷ বাহির থেকে তালাও লাগানো হয়েছে৷ যেন কোনো দালাল হুজুরের নিকট পৌছতে না পারে৷ এবং হুজুরকে বের করে আন্দোলন থামাতে না পারে৷

বাবু নগরী হযরত ইতিপূর্বে বিভিন্ন চাপের মুখে পড়ে দালাল চক্রের কথা মেনে ছাত্রদেরকে নসিহত করেছেন৷ যৌক্তিত বিষয় থেকেও ছাত্রদেরকে থামিয়ে রেখেছেন৷

একারণে চক্রটি ভালোভাবে জানে যে, বাবুনগরী ছাড়া ছাত্রদেরকে দরস রুমে ফেরানোর সাধ্য কারো নেই৷

তবে বিনীত স্বরে বলবো, বাবুনগরী হযরত যদি এই ইস্যুতেও তাদের কথা শুনে আন্দোলন থামাতে চান, তাহলে এটি তার জন্য বিশাল ক্ষতীকর হবে৷
কারণ যার জন্য সকলের মাঝে অস্থিরতা কাজ করে তিনিই যদি শত্রুদের চাপে পড়ে দুশমনদের কথা মেনে নেন, তাহলে অবশ্যই সমর্থন কমে যাবে৷ সমর্থকরাও হিম্মত হারা হয়ে যাবে৷

একারণে বাবুনগরী হযরতের রুমের সামনে বসানো হয়েছে কড়া সিকিউরিটি ও পাহাড়ার ব্যাবস্থাপনা৷ ছাত্রসমাজের ছয় দফা হল এই। 1/ অবিলম্বে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে আনাস মাদানী কে বহিষ্কার করতে হবে । 2/ আনাস মাদানী কর্তৃক অবৈধভাবে অব্যাহিত দেওয়া তিনজন স্বনামধন্য শিক্ষককে পুনর্বহাল করতে হবে। 3/ আনাস মাদনী কর্তৃক নিয়োগ প্রাপ্ত সমস্ত শিক্ষক কে বহিষ্কার করতে হবে। 4/ ছাত্রদের ওপর সব ধরনের জুলুম ও হয়রানি বন্ধ করতে হবে। 5/ আল্লামা আহমদ শফী সাহেব মাজুর হওয়ায় তাকে কার্যকরী মুহতামিম থেকে সম্মানজনকভাবে অব্যাহিত দিয়ে একজন বুজুর্গ দক্ষ আলেম কে মোহতামিম নিয়োগ দিতে হবে। 6/ আব্দুল কুদ্দুস, নুরুল আমিন, ও আবুল কাশেম ফেনী, সব বিতর্কিত কেউ শুরায় থাকতে পারবে না, সারাদেশে হক্কানী আলেম উলামাদের সমন্বয়ে শুরা পূর্ণ গঠন করতে হবে।

এই ছয় দফা দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত জোরদারভাবে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।
আল্লাহ তাআলা সমস্ত কওমি আলেম ওলামাদের কে এই সমস্ত স্বার্থপর কাজ থেকে হেফাজত করুন।

0 Reviews

Write a Review

Read Previous

সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল বনজীবীদের বিকল্প কর্মসংস্থানের লক্ষে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

Read Next

শত শত ট্রাকভর্তি পেঁয়াজ ছাড়ার অনুমতি দিয়েছে ভারত

%d bloggers like this: