শিরোনাম
বাংলাদেশে দরিদ্রসীমার নিচে মানুষের সংখ্যা কমলেও, গৃহহীন মানুষের সংখ্যা এখন ও কমেনি পাঁচ ক্রিকেটারকে ‘স্পেশাল অ্যাওয়ার্ড’ দিলেন পাপন নামাজ পড়তে সমস্যা হওয়ার কারনে অভিনয় ছাড়লেন নায়িকা মুক্তি চঞ্চল-শাওনের ভাইরাল ‘যুবতী রাধে’ গান নিয়ে বেধেছে বিতর্ক হয়েছেন মাস্ক না পরলে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সেবা পাওয়া যাবে না বলে নির্দশনা দিয়েছেন সরকার ১ নভেম্বর থেকে মাধ্যমিকের সিলেবাস শুরু হতে যাচ্ছে, ৮ নির্দেশনা জারি সাংবাদিকদের মানুষের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন: মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আজ শেরে বাংলা আবুল কাশেম ফজলুল হক এর ১৪৭তম জন্মবার্ষিকী শহরের আদলে হবে গ্রাম, একটি মাস্টারপ্লান গ্রহণ করেছে স্থানীয় সরকার এমএলএম ব্যবসার মাধ্যমে অসহায় মানুষদের লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে “এসএম ট্রেডিং”
নতুন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) – প্রথম বেলা

নতুন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী)

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) নামে নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করেছে মতাদর্শ রক্ষা সমন্বয় কমিটি। নতুন দলের সভাপতি হয়েছেন নুরুল হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন ইকবাল কবির জাহিদ।

দুদিনব্যাপী জাতীয় সম্মেলনের শেষ দিনে সাংগঠনিক অধিবেশনে শনিবার নতুন দল ও নেতৃত্ব নির্বাচন করেন কাউন্সিলররা।

তারা রাশেদ খান মেননের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ওয়ার্কার্স পার্টির ১০ম কংগ্রেস বর্জন করেন দলটির ছয় নেতা। তাদের অভিযোগ- ওয়ার্কার্স পার্টি বর্তমানে মার্কসবাদী-লেনিনবাদী আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়ে সুবিধাবাদী পার্টিতে পরিণত হয়েছে।

ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিমল বিশ্বাসকে নতুন দলের উপদেষ্টা নির্বাচিত করেন কাউন্সিলররা।

শনিবার সকালে যশোর জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে নুরুল হাসানের সভাপতিত্বে সাংগঠনিক অধিবেশন শুরু হয়। এতে অংশ নেন ২৫ সাংগঠনিক জেলা থেকে আসা ১৩০ কাউন্সিলর এবং ২৫ পর্যবেক্ষক।

অধিবেশনের শুরুতে সম্মেলনের প্রস্তাবনা পেশ করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি মতাদর্শ রক্ষা সমন্বয় কমিটির সমন্বয়ক ইকবাল কবির জাহিদ।

ওয়ার্কার্স পার্টির দশম কংগ্রেস উপলক্ষে পেশ করা বিকল্প প্রস্তাবই মতাদর্শ রক্ষা সমন্বয় কমিটির সম্মেলনের প্রস্তাব হিসেবে উত্থাপিত হয়।

এর ওপর কাউন্সিলররা আলোচনা করেন। পরে তা সর্বসম্মতভাবে পাশ হয়।

দুপুরের খাওয়ার পর দ্বিতীয় অধিবেশনে দলের নতুন নাম ও নেতৃত্ব নির্বাচন করেন কাউন্সিলররা। সর্বসম্মতভাবে দলের নাম নির্ধারণ হয় ‘বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী)’।

১১ সদস্য বিশিষ্ট দলের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন মনোজ সাহা, জাকির হোসেন হবি, অনিল বিশ্বাস, মোফাজ্জেল হোসেন মঞ্জু, তুষার কান্তি দাশ, সৈয়দ মজনুর রহমান, তপন সাহা চৌধুরী। কমিটিতে পরবর্তীতে আরো দুজনকে যুক্ত করা হবে বলে তারা জানান।

সম্মেলনে কেন্দ্রীয় কমিটির পাশাপাশি ১১ সদস্য বিশিষ্ট বিকল্প কমিটি এবং ছয় সদস্য বিশিষ্ট সাংগঠনিক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিকল্প সদস্যরা হলেন জিল্লুর রহমান ভিটু, নাজিম উদ্দিন, প্রফেসর ইসরারুল হক, গাজী আব্দুল হামিদ, শামসুর রহমান আক্তার, সিরাজুম মুনির, মুনিউর রহমান জিকো, নওশের আলী এবং কাজী ফিরোজ। এ পদেও আরো দুজনকে যুক্ত করা হবে।

সাংগঠনিক সদস্যরা হলেন শহিদুল এনাম পল্লব, মোজাম্মেল হক, জাহাঙ্গীর আলম সবুজ, হাশেম আলী, আলাউদ্দিন আহাম্মেদ, সিরাজ আহমেদ।

সম্মেলনে সিদ্ধান্ত হয়, কেন্দ্রীয় কমিটি পরে সিদ্ধান্ত নেবে প্রেসিডিয়াম না পলিটব্যুরো হবে। এর পর ওই কমিটি গঠন করবে কেন্দ্রীয় কমিটি।

নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ জানান, আগামী তিন মাসের মধ্যে কেন্দ্রীয় কমিটি দলের রাজনৈতিক ঘোষণা ও কর্মসূচি প্রণয়ন করবে।

তিনি জানান, ‘এ সম্মেলনের ডাক ছিল বহুধাবিভক্ত কমিউনিস্টদের ঐক্য ও বাম গণতান্ত্রিক বিকল্প গড়ে তোলা। সে কারণে ঐক্য প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটির নাম ঐক্য কমিটি।’

সম্মেলনের তাৎক্ষণিক প্রস্তাবনায় শ্রমজীবী, মেহনতি মানুষের মুক্তিসংগ্রামকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করে পার্টিকে প্রতিটি সেক্টরে জোরালোভাবে কাজ করতে হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। চিনি শিল্প রক্ষায় সরকারের আশু হস্তক্ষেপ কামনার পাশাপাশি চিনিকল শ্রমিকদের আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি জানানো হয় সম্মেলন থেকে। সরকার নির্ধারিত মূল্যে প্রকৃত কৃষকরা যাতে ধান ও চাল বিক্রি করতে পারে সে জন্যে কৃষকদের সংগঠিত করে আন্দোলন গড়ে তোলা, নসিমন-করিমন চালকদের ন্যায়সংগত দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ এবং পেঁয়াজসহ দ্রব্যমূল্য জনগণের নাগালের মধ্যে রাখার দাবিতে দেশব্যাপী আন্দোলন গড়ে তোলারও সিদ্ধান্ত হয় সম্মেলনে।

সমবেত কণ্ঠে কমিউনিস্ট আন্তর্জাতিক পরিবেশনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের সমাপ্তি হয়।

Read Previous

১৬ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধারা হাতে পাবেন স্মার্টকার্ড

Read Next

সুরিনামের প্রেসিডেন্টের ২০ বছর জেল

%d bloggers like this: