শিরোনাম
দুর্নীতি উন্নয়নের প্রধান বাধা, শুদ্ধি অভিযানে পরিশুদ্ধ হোক সমাজ রাষ্ট্র ঃ হাজী রেজাউল করিম পাভেল – প্রথম বেলা

দুর্নীতি উন্নয়নের প্রধান বাধা, শুদ্ধি অভিযানে পরিশুদ্ধ হোক সমাজ রাষ্ট্র ঃ হাজী রেজাউল করিম পাভেল

গত ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া শুদ্ধি অভিযান দেশের সাধারণ মানুষের সমর্থন পেয়েছে। আরো আগেই এ ধরনের অভিযান চালানোর দরকার ছিল। ক্ষমতাসীন দলে ভিড়ে শত শত কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া, ক্ষমতাসীন দলের নেতা ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে টাকার ভাগাভাগির খবর এসেছে গণমাধ্যমে। এই অভিযানের ভেতর দিয়ে দেশের রাজনৈতিক পরিবেশ পরিশুদ্ধ হোক। পরিশুদ্ধ হোক সমাজ রাস্ট।
মাঠপর্যায়ে সরকারদলীয় উচ্ছৃঙ্খল কিছু প্রভাবশালী নেতাকর্মী ও প্রশাসনের দুর্নীতিবাজদের যোগসাজশে দুর্নীতি উন্নয়নের প্রধান বাধা হয়ে পড়েছে। এর জন্য দেশকে কাংক্ষিত গন্তব্যে পৌঁছানো কষ্টকর। উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য এই অভিযান সঠিক সিদ্ধান্ত বলে মূল্যায়ন করি। ১৬ কোটি লোকের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আগাছা পরিষ্কার অভিযান শুরু করেছেন। এ অভিযান জনগণ কর্তৃক অভিনন্দিত হয়েছে এবং আরো হবে। সবার উচিত এই অভিযানকে সফল করতে সহায়তা করা।
চলমান শুদ্ধি অভিযান চলছে চলুক। কোনো অবস্থায়ই যেন এই অভিযান বন্ধ না করা হয়। শুদ্ধি অভিযানে অপরাধীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে উপার্জিত কোটি কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আবার এই অপরাধীদের ব্যাংকেও কোটি কোটি টাকার খোঁজ পাওয়া গেছে। এসব উদ্ধার হয়েছে। অভিযানে আমরা খুশি। পাশাপাশি সব ধরনের দখলবাজ, সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ, ভেজালকারী, ঘুষখোর, ধর্ষক, ছিনতাইকারী, রাস্তা-ফুটপাত দখলবাজসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডের বিরুদ্ধেও চাই কঠোরতর অভিযান। যাঁরা ধরা পড়বেন, তাঁদের বিচারকার্য বিশেষ ট্রাইব্যুুনালে করা হোক।
শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে স্বার্থবাজ, লোভী, লুটকারী, জনগণের অর্থ আত্মসাৎকারী, অবৈধ ব্যবসায় নিয়োজিত ব্যক্তি ও উন্নয়নে বিঘœ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে। প্রশ্ন হচ্ছে, এই লুটকারী, অত্যাচারী বিশ্বাসঘাতকরা কার হাত ধরে দলে প্রবেশ করেন, আশ্রয়দাতা কে ? ক্যাসিনোর সূত্রপাত কার হাতে? ক্যাসিনো বিস্তারে উৎসাহদাতাদের শনাক্ত করা হোক। রাজধানীতে প্রশাসনের নজর এড়িয়ে কী করে ৬০টি ক্যাসিনো তথা জুয়ার আসর বসে? সমাজ ধ্বংসকারীদের যাঁরা মন্ত্রীর পাশে বসতে সহযোগিতা করেছেন, যাঁরা তাঁদের পৃষ্ঠপোষকতা করেন, তাঁদের শক্ত হাতে দমন করা হোক। অভিযান চলতে থাকুক।

লেখকঃ হাজী রেজাউল করিম পাভেল
প্রচার সম্পাদক ঃ উত্তরা পশ্চিম থানা আওয়ামীলীগ
সাবেক সভাপতি ঃ আব্দুল্লাহপুর ইউনিট আওয়ামীলীগ।

Read Previous

পিতার হাত ধরে রাজনীতিতে আসা সেই ছোট্ট খোকা আজ যুবলীগের উজ্বল নক্ষত্র ”তুরাগ নাসির’’

Read Next

গাজীপুরে সি‌টি কর‌পো‌রেশ‌নের কাছে ক্ষ‌তিপুর‌নের দাবী‌তে জনতার মানববন্ধন

%d bloggers like this: