শিরোনাম
নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করে যাচ্ছেন এড. সাহারা খাতুন (এমপি) ঃ মিনারা সুলতানা – প্রথম বেলা

নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করে যাচ্ছেন এড. সাহারা খাতুন (এমপি) ঃ মিনারা সুলতানা

আমি কিংবদন্তির কথা বলছি, আমি আমার দেশের কথা বলছি। আমি মাটি ও মানুষের নেত্রী এড. সাহারা খাতুনের কথা বলছি। এড. সাহারা খাতুন একাধারে আইনজীবী, রাজনীতিক, সংগঠক এবং নারী নেত্রী। আন্দোলন সংগ্রামে তার সহযাত্রীদের ভাষায় তিনি অনন্য এক নারী। জীবনের প্রায় পুরাটা সময় তিনি কর্মীদের সাথে এক কাতারেই কাটিয়েছেন।
আওয়ামী লীগের নারী কর্মীদের কাছে এক অনুপ্রেরণার নাম, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর অন্যতম সদস্য এড. সাহারা খাতুন এমপি। উনি একজন মহিলা কর্মীবান্ধব নেত্রী । মহিলাদের কি করে সংগঠিত করতে হয়, নেতৃত্ব শিখাতে হয়, রাজনীতিতে আনতে হয়, তা খুব আন্তরিকতা দিয়ে শিখিয়ে দেন। আওয়ামী লীগের সকল আন্দোলন সংগ্রামে তিনি তার কর্মীদের নিয়ে সব সময়ই রাজপথে ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। অসম্ভব কর্মীবান্ধব এ মানুষটি আজ অনুজদের কাছে রাজনীতিতে এগিয়ে যাবার অনুপ্রেরণা।
সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য, নারীর ক্ষমতায়নের জন্য তিনি আমাদের তৈরি করেছেন। তিনি সব সময় দলের দুর্দিনে রাজনীতির মাঠে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে গেছেন।
এড. সাহারা আপা রাজনীতি শুরু করেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরেই। নানা উথান পতনের মাঝেও দলের দুর্দিনের কান্ডারি হয়ে সংগ্রাম মুখর জীবন পরিচালনা করে আসছেন তিনি। তার অনুপ্রেরনায় আমার মত শত-হাজার-লাখো নারী সামাজিক বৃত্তের বেড়াজাল ছিন্ন করে রাজনিতিতে নাম লিখিয়েছে। প্রায় ৫০বছর ধরে নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে চলেছেন তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ।
বঙ্গবন্ধুর স্নেহ ধন্য সাহারা আপা বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার খুব-ই আস্থাভাজন ও বিশ্বস্ত। জননেত্রী শেখ হাসিনা যখন এক ১১ সরকারের জুলুমের শিকার হয়ে জেলে তখন একমাত্র আমাদের সাহারা আপাই নাওয়া খাওয়া ভুলে রাত দিন তার মুক্তির জন্য একদিকে চালিয়েছেন আইনী লড়াই অন্যদিকে করেছেন রাজপথের আন্দোলন। অসীম সাহসী আপা ভয়হীন চিত্তে লড়াই করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মুক্ত করে স্বস্থির নিঃশ্বাস ফেলেছেন।

স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে তার মত সংগ্রামী নারী বাংলাদেশ খুব বেশি পায়নি । রত্নগর্ভা মা যিনি তাকে জন্ম দিয়েছেন। পরিচ্ছন্ন রাজনীতির এক কিংবদন্তি বলা চলে তাকে। ঢাকা ১৮ নির্বাচনী আসনের তিন বারের নির্বাচিত এমপি তিনি। সকলের প্রিয় এই আপা ঢাকা ১৮ নির্বাচনী আসনের প্রতিটি অলিতে গলিতে গিয়েছেন জনগনের সুখ দুঃখ ভাগ করে নিতে। সকল সামাজিক অনুষ্ঠান সমুহে তার উপস্থিতি সবার আগে। তার মহানুভতার ছোয়া পায়নি এমন মানুষ এ এলাকায় খুজে পাওয়া দুস্কর হবে।
আওয়ামীলীগ যখন বিরোধী দল তখন এ দেশে রাজনীতির পথ ছিল কন্টকাকীর্ণ ও চোরাবালিতে ভরপুর। তখন তিনি অত্যন্ত ধীর স্থিরভাবে, প্রত্যয়ের সঙ্গে পা ফেলেছেন, একের পর এক কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করেছেন। এরপর দলকে ঐক্যবদ্ধ করে সরকার বিরোধী আন্দোলন করেছেন, জেল জুলুমের শিকার হয়েছেন কিন্তু কভু পিছু হটেন নি। নিজে রাজপথে থেকে সাহস যুগিয়েছেন হাজারো নেতা কর্মীর বুকে। আজ অবধি তার নেতৃত্ব আমাদেরকে স্বপ্ন দেখায়। আমাদের অত্যন্ত সৌভাগ্য যে, তার মত এক মহান নেত্রী পেয়েছি। সাহারা আপার দূরদর্শী নেতৃত্বের ফলে ঢাকা ১৮ আসনে আজ নৌকার জয়জয়কার।
মহান জাতীয় সংসদে গিয়ে অসহায়,নিপীড়িত আর বঞ্চিত নারীদের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা অনস্বীকার্য। যেভাবে তিনি ঘরে ঘরে গিয়ে নারীদের নৌকার পক্ষে সু-সংগঠিত করেছেন ইতিহাস তার সাক্ষী। তিনি রাজনীতি করেন গরীব ও মেহনতি মানুষদের জন্যে। নেতাকর্মীদের দোয়া ও ভালোবাসায় তিনি থাকুন হাজারো বছর এমনটাই প্রত্যাশা করি।

(এ প্রতিবেদন টি ধারাবাহিক ১ম পর্ব এখানেই সমাপ্ত) 

মিনারা সুলতানা
মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা, দক্ষিনখান থানা আওয়ামীলীগ
সদস্য: গর্ভনিং বডি, উত্তরা হাই স্কুল এন্ড কলেজ
নির্বাহী পরিচালক: গণ উন্নয়ন বিকাশ কেন্দ্র

0 Reviews

Write a Review

Read Previous

শেরপুরে পুলিশ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

Read Next

বাংলাদেশ ললিতকলা পরিষদের উদ্যোগে শরৎ উৎসব পালিত

%d bloggers like this: