শিরোনাম
ডিএনসিসির ৪৫নং ওয়ার্ডকে মডেল ওয়ার্ডে রুপান্তর করতে কাজ করে য়াচ্ছেন কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন – প্রথম বেলা

ডিএনসিসির ৪৫নং ওয়ার্ডকে মডেল ওয়ার্ডে রুপান্তর করতে কাজ করে য়াচ্ছেন কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন

মোঃ শরিফ আহমেদঃ ডিএনসিসির নব গঠিত ওয়ার্ড সমুহে নির্বাচন হয় এ বছরের শুরুর দিকে। উত্তরখানের ৪৫নং ওয়ার্ডে প্রার্থী ছিলেন বেশ কজন। এর মধ্যে জনতার রায়ে বিজয় মাল্য গলে পড়েন তারুণ্য নির্ভর ত্যাগী নেতা জয়নাল আবেদীন। তিনি উত্তরখান থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। মানুষের নিরুংকুশ ভালোবাসা তিনি তার কর্ম , ত্যাগ ও সততার মাধ্যমে অর্জন করেছেন।
তিনি বিজয়ী হবার পর বসে থাকেননি একটি মুহূর্ত, লেগে পড়েছেন নিজ নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নে। ডিএনসিসির বাজেটের অপেক্ষায় না থেকে নিজ অর্থায়নে ড্রেন পরিস্কার, ভাঙ্গা রাস্তার মেরামত, রাস্তায় বাতি লাগিয়ে অন্ধকার দূরীকরণ থেকে নিয়ে নানা উন্নয়ন কর্ম সম্পাদন করে চলেছেন। অল্প সময়ের মধ্য তিনি ৩৫০ ফিট সুয়ারেজ পাইপ লাইন বসিয়েছেন। নোয়াপাড়া এলাকায় ২০০ ফিট সুয়ারেজ পাইপ লাইন বসানোর কাজ শেষ করেছেন ইতিমধ্যেই। ৪৫নং ওয়ার্ডের প্রায় সকল রাস্তাই মেরামত করেছেন, ড্রেন পরিস্কার করেছেন। সারাদেশে য়খন ডেঙ্গু মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছিলো তখন ৪৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন রাতদিন এক করে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছেন নিজ এলাকাকে ডেঙ্গু মুক্ত রাখতে। তার অবিরাম সচেতনতা মুলক প্রচারনায় এলাকাবাসীর সহায়তায় পুরা এলাকা থেকেই এডিস মশার বংশ বিস্তার রোধে কার্য়করী পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন তিনি। য়ার ফলে ৪৫নং ওয়ার্ড হয়েছে ডেঙ্গু মুক্ত।
তার সেবামূলক কর্মকান্ড এলাকার সকলেই সন্তুষ্ট। দলমত নির্বিশেষে ধনী-গরিব সকলেই তার কাছে সমান। জনগন আর তার মাঝে নেই কোন দেয়াল। তার অফিস ও বাসার দুয়ার সবার জন্য উন্মুক্ত। এলাকায় ঘুরে ঘুরে মানুষের সমস্যার খবর নেন তিনি, বিপদে আপদে সবাই তাকে কাছে পায়।
প্রথম বেলার সাথে আলাপকালে কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন বলেন, পানি ও গ্যাস সংকট, জলাবদ্ধতা নিরসন এবং নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর জীবনয়াপন নিশ্চিত করতে এলাকাবাসীর কল্যাণে কাজ করে য়াচ্ছি। সবার জন্য শিক্ষার সুয়োগ তৈরি করা আমার প্রধান লক্ষ্য। ঘিঞ্জি ও নোংরা পরিবেশ, য়ত্রতত্র ময়লার স্তূপ, বিদ্যুৎ ও তীব্র গ্যাস সংকট, চারদিকে ধুলাবালি, রাস্তার পাশে অবৈধ দোকানপাট, অবৈধ দখল-দূষণে খাল, সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি ও মাদকের করাল গ্রাস এই এলাকার মুল সমস্যা হিসেবে চিনহ্নিত ছিলো আমি দায়িত্ব নেবার পূর্বে। আমি পরিকল্পিত ভাবে এসব সমস্যা থেকে উত্তরনের কাজ করছি। আশা করি সকলের সহায়তা পেলে আমি সফল হবো।
তিনি আরও বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। অন্যায়ের সঙ্গে কখনই আপস করিনি, করবও না। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আদর্শে অনুপ্রাণিত থেকেই ৪৫ নং নম্বর ওয়ার্ডের সার্বিক উন্নয়ন করব। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশ ক্রমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে আমি কাজ করে য়াচ্ছি। শেখ হাসিনা সরকার হলো উন্নয়নের সরকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের মাঝে বেচে থাকুন য়ুগ য়ুগান্তর। তিনি বেচে থাকলে এবং ক্ষমতায় থাকলে বাংলাদেশ উন্নয়নের শিখরে আরোহণ করবে।

0 Reviews

Write a Review

Read Previous

সন্ত্রাসী হামলার শিকার হলেন স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা হিমেল হায়দার

Read Next

৫৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর হোসেন যুবরাজ শুধু নামে নয় কাজেও যুবরাজ

%d bloggers like this: